ক্রাইম থ্রিলার মুভির কদর বিশ্বজুড়ে সকল ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রিতে বিদ্যমান। এ ধরণের গল্পে একটি সমস্যা দেখা যায় আর তা হলো নতুনত্বের অভাব। আবার মুদ্রার অপর পিঠের গল্পও রয়েছে। কিছু মুভি রয়েছে যেগুলো বাদবাকি নির্মাতাদের জন্য অনেকটা বেঞ্চমার্ক হয়ে দাঁড়ায়। তাদের অনুকর‍ণ করে তৈরি করা হয় বহু মুভি। এরকম একটি মুভি হচ্ছে ১৯৯৫ সালে মুক্তি পাওয়া মিস্ট্রি ক্রাইম থ্রিলাম দ্য ইউজুয়াল সাসপেক্ট (The Ususal Suspects)।

আমেরিকার ক্যালিফোর্নিয়ার একটি ক্রাইম সিন্ডিকেট এবং এক রহস্যময় তুর্কি মাফিয়া বস কাইজার শোজেকে ঘিরে গড়ে উঠেছে দ্য ইউজুয়াল সাসপেক্টের কাহিনী। এ মুভিটি পরিচালনা করেছেন খ্যাতিমান পরিচালক ব্রায়ান সিংগার এবং লিখেছেন চিত্রনাট্যকার ক্রিস্টোফার ম্যাককোইয়ার। মুভিটিতে একটি গুরুত্বপূর্ণ চরিত্রে অভিনয় করেছেন তারকা অভিনেতা কেভিন স্পেসি। মুক্তির পর সে বছর মুভিটি সেরা চিত্রনাট্য এবং সেরা পার্শ্ব চরিত্রে অভিনয়, এ দুই ক্যাটাগরিতে অস্কার পুরষ্কার অর্জন করে নেয়। চলুন জেনে আসা যাক কালজয়ী এ থ্রিলারের ব্যাপারে বিস্তারিত বিশদ বিবরণ।

কাহিনী সংক্ষেপ

মুভিটির শুরুতে দেখা যায় ক্যালিফোর্নিয়ার স্যান পেদ্রো বে (San Pedro Bay) তে একটি জাহাজে বেশ কিছু গ্যাংস্টার আহত এবং নিহত অবস্থায় পড়ে রয়েছে। সন্ত্রাসী এবং মাফিয়া বস ডীন কিটনকে আহত অবস্থায় এক অজ্ঞাতনামা আততায়ীর সাথে কথা বলতে দেখা যায়। এ রহস্যময় আততায়ীকে তার পূর্ব পরিচিত বলে মনে হয়, যাকে কিনা সে কাইজার নামে ডাকতে থাকে।

জাহাজের সেই দৃশ্যটি; Source: pinterest.com

ঘটনাস্থলে পুলিশ এসে ২৭টি মৃতদেহ আবিষ্কার করে এবং মাত্র দুজন ব্যক্তিকে জীবিত উদ্ধার করে। এদের মধ্যে একজন হাংগেরীয় গ্যাংস্টার আরকোশ কোভাশ যাকে গুরুতর আহত অবস্থায় পাওয়া যায় এবং অপর ব্যক্তি হল রজার কিন্ট ওরফে ভার্বাল, যে কিনা সেরেব্রাল পালসি রোগে আক্রান্ত এক ছিচকে অপরাধী।

এজেন্ট ডেভ কুজানকে নিউ ইয়র্ক থেকে নিয়ে আসা হয় ভার্বালকে জিজ্ঞাসাবাদ করার জন্য। তারপর ভার্বাল বিবরণ দিতে থাকে কি করে ভাগ্যের নির্মম পরিহাসে সে এবং তার চার সাথী কিটন, মাইকেল ম্যাকমানাস, ফ্রেড ফেন্সটার এবং টড হকনি সে জাহাজে পৌছায়।

ভার্বালকে জিজ্ঞাসাবাদের এক পর্যায়ে এজেন্ট কুজন; Source: youtube.com

ছয় সপ্তাহ পূর্বে ভার্বাল এবং বাকি চার জনকে নিউ ইয়র্ক থেকে আটক করা হয় একটি ট্রাক হাইজ্যাক করার সন্দেহে। মিথ্যে হয়রানিমূলক এ ঘটনা থেকে তার সে যাত্রা কিটনের প্রেমিকা এডি ফিনেরানের কারণে মুক্তি পায়। কিন্তু এ মিথ্যে গ্রেপ্তারের কারণে তাদের সকলেরই মানহানি হয় এবং স্বাভাবিক জীবনে ব্যাঘাত ঘটে। তাই তারা সিদ্ধান্ত নেয় পুলিশের বিরুদ্ধে বদলা নেওয়ার।

কিটনের নেতৃত্বে তারা এক গয়না পাচারকারীকে ছিনতাই করে যার সাথে সে সময় নিউ ইয়র্ক পুলিশের অনেক দুর্নীতিবাজ অফিসারও ছিল পার্টনার হিসেবে। সে ঘটনায় নিউ ইয়র্ক পুলিশের প্রায় পঞ্চাশজন অফিসার আটক হয় এবং কিটন ও তার গ্যাং সফলভাবে পালিয়ে যেতে সক্ষম হয়।

জেলে আটক থাকা অবস্থায় ভার্বালের দলের সদস্যরা; Source: youtube.com

তবে বিপত্তি বাধে যখন তারা সে রত্নগুলো এক চোরাকারবারির নিকট বেচতে ক্যালিফোর্নিয়া যায়। সেখানে তারা খুব দ্রুত বেশ কিছু ঝামেলায় জড়িয়ে পড়তে থাকে এবং কাইজার শোজে নামক তুরস্কের এক মাফিয়া বসের খপ্পরে পরে যায়। অজ্ঞাতনামা এ কাইজার শোজে সম্পর্কে খুব বেশি কিছু জানা যায় নি, তবে শোনা যায় একবার হাংগেরীয় মাফিয়া তার পরিবারের সদস্যদের একবার আটক করার পর সে নিজ পরিবারের সদস্য এবং মাফিয়া সবাইকে নিজে হত্যা করে। এমনকি মাফিয়া গ্যাংস্টারদের পরিবারের সদস্যদের নির্মমভাবে হত্যা করতেও সে পিছপা হয় নি। শেষ পর্যন্ত ভার্বাল,কিটন এবং তাদের গ্যাং কি করে কাইজার শোজের কারণে সে জাহাজটিতে গিয়ে পৌছায় এবং পুলিশ শেষ পর্যন্ত কাইজারকে ধরতে সক্ষম হয় কিনা তা জানতে হলে আপনাদের দেখতে হবে এ মুভিটি।

নির্মাণ, অভিনয় এবং রেটিং

দ্য ইউজুয়াল সাসপেক্ট মুভিটির পরিচালনা ও প্রযোজনার দায়িত্বে ছিলেন নির্মাতা ব্রায়ান সিংগার। সাসপেন্স থ্রিলার ধাঁচের এ ধরণের মুভির অন্যতম প্রধান উপাদান হচ্ছে কি করে পরিচালক দর্শকদের সামনে দৃশ্যগুলো তুলে ধরবেন তা, আর এদিক দিয়ে ব্রায়ান সিংগার মুভির শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত চমক ধরে রাখতে পেরেছিলেন বলা যায়। মুভিটির চিত্রনাট্যের কাজ করেছেন ক্রিস্টোফার ম্যাককোইয়ার যার জন্য তিনি ১৯৯৫ সালের ৬৮ তম অস্কার অনুষ্ঠানে সেরা মৌলিক চিত্রনাট্যের পুরষ্কার জিতে নেন।

ভার্বাল চরিত্রে কেভিন স্পেসি; Source: quora.com

মুভিটির বিভিন্ন চরিত্রে অভিনয় করেছেন স্টিফেন বল্ডউইন, গ্যাব্রিয়েল ব্রাইন, বেনিসিয়ো ডেল টরো এবং কেভিন স্পেসির মত অভিনেতারা। এদের মধ্যে কেভিন স্পেসির অভিনয় বিশেষত উল্লেখযোগ্য। এ মুভিটি তার ক্যারিয়ারের জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ মুভি হিসেবে বিবেচিত। তিনি সে বছর সেরা পার্শ্ব চরিত্রে অভিনয়ের জন্য অস্কার লাভ করেন এবং হলিউডের হেভিওয়েট তারকা হিসেবে আত্মপ্রকাশ করেন।

মুভিটির একটি দৃশ্য; Source: collider.com

এ মুভিটিকে বর্তমানে ক্লাসিক মুভির কাতারে ফেলা হয় এবং রেটিং মুভিটিকে স্থান করে দিয়েছে সর্বকালের সেরা মুভিগুলোর তালিকায়। মুভিটি ৮.৬ রেটিং নিয়ে প্রায় বেশ কয়েকবছর যাবত আইএমডিবির সেরা ২৫০ মুভির তালিকায় জায়গা দখল করে আছে। রটেন টমেটোতে মুভিটিকে ৮৯ শতাংশ ফ্রেশ আখ্যায়িত করা হয়েছে। মেটাক্রিটিকেও মুভিটি ১০০-র ভেতর ৭৭ স্কোর করতে সক্ষম হয়েছে।

কেন এ মুভিটি দেখবেন

হলিউডে নব্বই দশকে প্রচুর ভালো মুভি মুক্তি পায় যেগুলো সর্বকালের সেরাদের তালিকায় নিজেদের জায়গা করে নিতে সক্ষম হয়েছে। এ মুভিটির অনুকরণে বলিউডসহ বিশ্বের বিভিন্ন ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রিতে এ মুভিটির রিমেক বানানো হয়েছে। তাই যদি আপনি ক্রাইম, সাসপেন্স, মিস্ট্রি এ ধরণের উপাদানে সমৃদ্ধ মুভির ভক্ত হয়ে থাকেন তাহলে এ মুভিটি দেখা আপনার জন্য অত্যাবশ্যক।

Related Article

0 Comments

Leave a Comment